• Sunrise At: 5:50 AM
  • Sunset At: 5:46 PM
[email protected] +88 01975539999

মাখলুকের সর্বপ্রকার অনিষ্ট ও অপকারিতা হইতে হেফাযতের আমল

হযরত আবদুল্লাহ্ বিন খুবাইব রাযিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন যে, একদা গভীর অন্ধকার রাতে বৃষ্টিপাতের মধ্যে আমরা রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াছাল্লাম-এর খোঁজে বাহির হইলাম। খুঁজিতে খুঁজিতে তাঁহাকে পাইয়া গেলাম। অতঃপর তিনি ইরশাদ করিলেন, (আবদুল্লাহ্,) তুমি পাঠ করিও। আমি বলিলাম, কি পাঠ করিব ? হুযুর বলিলেন, প্রত্যহ সকাল-সন্ধ্যায় সূরায়ে কুল হুওয়াল্লাহু আহাদ, কুল আউযু বিরাব্বিল ফালাক ও কুল আউযু বিরাব্বিন্নাছ প্রতিটি তিনবার করিয়া পাঠ করিবে। তাহা হইলে সর্ববিষয়ে ইহা তােমার জন্য যথেষ্ট হইয়া যাইবে।  (মেশকাত শরীফ ১৮৮ পৃষ্ঠা।)

ব্যাখ্যাঃ বিখ্যাত মােহাদ্দেস হযরত মােল্লা আলী ক্বারী (রহ.) মেরকাত ৪র্থ খন্ড, ৩৭০ পৃষ্ঠায় লিখিয়াছেন যে, আল্লামা ত্বীবী (রহ.) বলেন, সর্ব বিষয়ে যথেষ্ট হইবে’—কথাটির দুইটি অর্থ হইতে পারেঃ

১- সকল অনিষ্টকারীর সব রকম অনিষ্ট হইতে হেফাযতের জন্য ইহাই যথেষ্ট রাক্ষাকবচ।

২- যে কোন অনিষ্ট ও ক্ষতি হইতে হেফাযতের জন্য এ ওযীফাই যথেষ্ট, এতদুদ্দেশ্যে ইহার পর আর কোন ওযীফা পড়ার দরকার থাকে না।

বর্তমানে মুসলমান কত পেরেশান, কত রকমের সমস্যায় জর্জরিত। কাহারও জ্বিন কিংবা ভূত-প্রেতের আক্রমণের পেরেশানী, কাহারও দুশমন কর্তৃক যাদু- বানটোনার পেরেশানী। কাহারও দোকান, কায়-কারবার কিংবা বিবাহ-শাদীর উপর যাদু চালাইয়া ক্ষতিসাধন করা হইতেছে। কাহারও দোকানে গ্রাহক আসিতেছে না কিংবা ছেলে-মেয়ের বিবাহ হইতেছে না। (ঘরের ভিতরে বা

বাহিরে যে কোন ধরনের দুর্ঘটনার শিকার হওয়ার আশংকা। যেমন, শারীরিক বা আর্থিক ক্ষতি বা গাড়ী- ঘােড়ার এ্যাক্সিডেন্ট ইত্যাদি।) কেহবা প্রতিনিয়তই নিত্য- নতুন বালা-মুসীবত ও মুশকিলের সম্মুখীন হইতেছে। আমরা যদি প্রত্যহ সকাল-সন্ধ্যায় দুই-তিন মিনিটের এই ওযীফাটি আদায় করি, তাহা হইলে সর্ব প্রকার সমস্যা ও বালা-মুসীবত হইতে ইনশা-আল্লাহ অবশ্যই হেফাযত ও নিরাপদ থাকিব।

সূরা আল-ইখলাস

بِسمِ اللَّهِ الرَّحمٰنِ الرَّحيمِ

قُلْ هُوَ اللَّهُ أَحَدٌ (: 1)
اللَّهُ الصَّمَدُ (: 2)
لَمْ يَلِدْ وَلَمْ يُولَدْ (: 3)
وَلَمْ يَكُنْ لَهُ كُفُوًا أَحَدٌ (: 4)

উচ্চারণ : কুল হুয়াল্লাহু আহাদ। আল্লাহুচ্ছামাদ। লাম ইয়ালিদ ওয়া লাম ইউলাদ। ওয়া লাম ইয়াকুল্লাহু কুফুয়ান আহাদ।
অর্থ : আপনি (তাহাদিগকে) বলিয়া দিন যে, তিনি অর্থা ৎ আল্লাহ এক। আল্লাহ অমুখাপেক্ষী। তাঁহার কোন সন্তান-সন্ততি নাই,আর তিনি কাহারও সন্তান নহেন।  আর তাঁহার সমতুল্যও কেহই নাই।’ 

সূরা আল-ফালাক

بسم الله الرحمن الرحيم

قُلْ أَعُوذُ بِرَبِّ الْفَلَقِ (: 1)
مِنْ شَرِّ مَا خَلَقَ (: 2)
وَمِنْ شَرِّ غَاسِقٍ إِذَا وَقَبَ (: 3)
وَمِنْ شَرِّ النَّفَّاثَاتِ فِي الْعُقَدِ (: 4)
وَمِنْ شَرِّ حَاسِدٍ إِذَا حَسَدَ (: 5)

উচ্চারণঃ ১) কুল আ‘ঊযুবিরাব্বিল ফালাক (২) মিন শাররি মা-খালাক। (৩) ওয়া মিন শাররি গা-ছিকিন ইযা-ওয়াকাব।
(৪) ওয়া মিন শাররিন নাফফা-ছা-তি ফিল ‘উকাদ। (৫) ওয়া মিন শাররি হা-ছিদিন ইযা-হাছাদ।

অর্থ : ১) আপনি বলুন যে, আমি প্রভাতের মালিকের আশ্রয় গ্রহণ করিতেছি।
২) সমস্ত  সৃষ্ট বস্তুর অপকারিতা হইতে।
৩) আর অন্ধকার রাত্রির অপকারিতা হইতে,  যখন (উহা) আসিয়া উপস্থিত হয়।
৪)  আর (জাদু তাগার) গ্রন্থিসমূহের উপর পড়িয়া পুড়য়া ফুৎকার কারিণীদের অপকারিতা হইতে। 
৫) আর হিংসা পোষণকারীর অপকারীতা হইতে-যখন সে হিংসা করিতে থাকে। 

সূরা আন-নাস

بسم الله الرحمن الرحيم

قُلْ أَعُوذُ بِرَبِّ النَّاسِ (: 1)
مَلِكِ النَّاسِ (: 2)
إِلَهِ النَّاسِ (: 3)
مِنْ شَرِّ الْوَسْوَاسِ الْخَنَّاسِ (: 4)
الَّذِي يُوَسْوِسُ فِي صُدُورِ النَّاسِ (: 5)
مِنْ الْجِنَّةِ وَالنَّاسِ (: 6)

 

Designed by Mohd Nassir Uddin